1. alimsnb0@gmail.com : Abdul Alim :
  2. zunaid365@gmail.com : Engineers Voice :
  3. robinsnb18@gmail.com : Robin :
দুজন শিক্ষার্থীকে স্মার্টফোন দিল যবিপ্রবির ফিন্যান্স অ্যান্ড ব্যাংকিং ক্লাব - Engineers Voice
সংবাদ শিরোনাম :
কুয়েটের ‘ল্যাব এ্যাটেনডেন্ট’, ‘অফিস এ্যাসিস্টেন্ট কাম ডাটা প্রসেসর’ ও ‘অফিস সহায়ক’ পদের নিয়োগ পরীক্ষা অনিবার্য কারণে স্থগিত চুয়েটে জমকালো আয়োজনে মহান স্বাধীনতা দিবস ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন দুই লাখ টাকার শুল্ক কর হলেই ই-পেমেন্ট বাধ্যতামূলক “আন্তর্জাতিক নারী দিবস-২০২১” উপলক্ষে স্টার্টআপদের নিয়ে আইসিটি বিভাগের iDEA এর বিশেষ সেমিনার চুয়েটে বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক ৭ই মার্চ উদযাপিত “বঙ্গবন্ধুর ৭ই মার্চের ভাষণে বাঙালী স্বাধীনতার চেতনায় উজ্জীবিত হয়” -কুয়েট ভাইস-চ্যান্সেলর সৃজনশীল বিনোদন-কনটেন্ট তৈরি করতে আইসিটি প্রতিমন্ত্রীর আহ্বান চুয়েটের সাবেক সিন্ডিকেট সদস্য ও অ্যালামনাই প্রফেসর ড. প্রকৌশলী মো. আলী আশরাফের মৃত্যুতে চুয়েট ভিসির শোক প্রকাশ চুয়েটে তিনদিনব্যাপী পুরকৌশল বিষয়ক আন্তর্জাতিক কনফারেন্স সম্পন্ন স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী ও মুজিব বর্ষ উপলক্ষে যবিপ্রবির মাসব্যাপী কর্মসূচি

দুজন শিক্ষার্থীকে স্মার্টফোন দিল যবিপ্রবির ফিন্যান্স অ্যান্ড ব্যাংকিং ক্লাব

  • আপডেট টাইম : বুধবার, ২৫ নভেম্বর, ২০২০

অনলাইন ক্লাসে অংশগ্রহণের অসুবিধা দূরীকরণের জন্য দুইজন অস্বচ্ছল শিক্ষার্থীকে দুটি স্মার্টফোন প্রদান করেছে যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ফিন্যান্স অ্যান্ড ব্যাংকিং (এফবি) বিভাগের ‘ফিন্যান্স অ্যান্ড ব্যাংকিং ক্লাব’।

আজ সোমবার দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের মাইকেল মধুসূদন দত্ত কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগার কাম একাডেমিক ভবনে ফিন্যান্স অ্যান্ড ব্যাংকিং বিভাগের সভাপতির কক্ষে ওই দুইজন শিক্ষার্থীর হাতে দুটি স্মার্টফোন তুলে দেওয়া হয়। ফিন্যান্স অ্যান্ড ব্যাংকিং বিভাগের শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের ব্যক্তিগত তহবিলের সহায়তায় এ ক্লাব পরিচালনা করা হয়।

ফিন্যান্স অ্যান্ড ব্যাংকিং বিভাগের সভাপতি ড. মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম জানান, ফিন্যান্স অ্যান্ড ব্যাংকিং বিভাগের শিক্ষার্থীদের দ্বিতীয় সেমিস্টারের ক্লাস শুরু হলেও দুইজন শিক্ষার্থীর মোবাইল ডিভাইস না থাকায়, তাঁদেরকে শিক্ষা কার্যক্রমে অন্তর্ভুক্ত করানো যাচ্ছিল না। তাঁদের সহায়তার জন্য ফিন্যান্স অ্যান্ড ব্যাংকিং ক্লাব এগিয়ে আসে। ওই দুজন শিক্ষার্থীকে অনলাইনে ক্লাসে অংশগ্রহণের উপযোগী দুটি মোবাইল ডিভাইস প্রদান করা হয়েছে। এখন ফিন্যান্স অ্যান্ড ব্যাংকিং বিভাগের শতভাগ শিক্ষার্থীকে অনলাইন শিক্ষা কার্যক্রমে আওতাভুক্ত করা সম্ভব হবে বলে আশা করছি। অতিমারী করোনার সময় শিক্ষার্থীদের সহায়তায় এগিয়ে আসার জন্য বিভাগের শিক্ষক-শিক্ষার্থীদেরকে ধন্যবাদ জানান তিনি।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদের ডিন ড. মো. মেহেদী হাসান, অ্যাকাউন্টিং অ্যান্ড ইনফরমেশন সিস্টেমস বিভাগের সভাপতি ড. মোহাম্মদ কামাল হোসেন, ফিন্যান্স অ্যান্ড ব্যাংকিং বিভাগের প্রভাষক এ. এইচ. এম. শাহরিয়ার, ফিন্যান্স অ্যান্ড ব্যাংকিং ক্লাবের সদস্য মো. বেলাল হোসেন, মো. লিখন হোসেন প্রমুখ।

খবরটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ ক্যাটাগরীর আরো সংবাদ

© স্বত্ত্বঃ ইঞ্জিনিয়ার্স ভয়েস: ২০১৭-২০২১ --- “ইঞ্জিনিয়ার্স ভয়েস” এ প্রকাশিত/প্রচারিত যেকোন সংবাদ, আলোকচিত্র, অডিও বা ভিডিওচিত্র বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা সম্পূর্ণ বেআইনি এবং নিষিদ্ধ।

Site Customized By NewsTech.Com